উপকরনঃ
– মোরগ, দেড় কেজি, পিছ কেমন করবেন তা আপনি নিজেই ঠিক করতে পারেন
– টক দই, দেড় কাপ, মোরগের মাংস ভিজিয়ে রাখার জন্য
– পেঁয়াজ কুঁচি, হাফ কাপ

– আদা বাটা, ১ টেবিল চামচ
– রসুন বাটা, ১ টেবিল চামচ
– বাদাম বাটা, ৪ টেবিল চামচ
– ধনিয়া বাটা, ১ চা চামচ
– জিরা বাটা, ১ চা চামচ
– লাল মরিচ গুড়া, দেড় চা চামচ (ঝাল বুঝে, ঝাল কম খেলে কম দিতে হবে)

– পোস্তা দানা বাটা, হাফ চা চামচ
– জয়ত্রী বাটা, হাফের কম চা চামচ
– দারুচিনি বাটা, হাফ ইঞ্চি ৪/৫টা
– এলাচি বাটা, ৪/৫ টা
(পোস্তা, জয়ত্রী, দারুচিনি, এলাচি কে সামান্য ভেঁজে বেঁটে ফেলা যায়, এতে ঘ্রান আরো বেড়ে যাবে)

– কাঁচা মরিচ, কয়েকটা
– লবন (পরিমান মত)
– তেল, সয়াবিন হাফ কাপের কিছু বেশী
– পানি, এক কাপ (যদি লাগে)
অফশনাল (ইচ্ছা হলে দিতে পারেন)
– আলু বোখারা, কয়েকটা
– কিসমিস, গোটা দশ/বারটা

প্রনালীঃ
*মোরগের মাংসকে টক দইতে কিছুক্ষন ভিজিয়ে রাখুন।

*কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুঁচি হাফ চা চামচ লবন যোগে ভাঁজুন।
*পেঁয়াজের রং হলদে হয়ে গেলে এবার সমস্ত মশলা/ভেজষ (উপরের পরিমান মত) কড়াইতে দিয়ে দিন।
*মশলা ও ভেজষ ভেঁজে এমন করে তেল উঠিয়ে নিন। এখানে ধৈর্য দেখাতে হবে। সমস্ত মশলা যেন একটা ভিন্ন ঘ্রানে চলে আসে।
*এবার টক দইতে ভিজিয়ে রাখা মাংস গুলো দই সহ দিয়ে দিন। ভাল করে মিশিয়ে নিন।

*আরো হাফ কাপ পানি দিতে পারেন এবং এবার ঢাকনা দিয়ে মাধ্যম আঁচে মিনিট ২০/২৫ রেখে দিন। মাঝে দুই একবার নাড়িয়ে দিতে ভুলবেন না।
*মাংস নরম হল কিনা দেখে নিন। (এই পর্যায়ে কয়েকটা আলু বোখারা এবং কিছু কিসমিস দিতে পারেন, কয়েকটা কাঁচা মরিচ দিতে ভুলবেন না।
*ফাইন্যাল লবন দেখুন, লাগলে দিন, না লাগলে ওকে। ঝোল কমিয়ে নিতে আগুনের আঁচ বাড়িয়ে দিন। গা গা ঝোল হলে আগুন নিবিয়ে দিন।