ত্বক ও চুলের যত্নে এলোভেরা জেল এর কোন তুলনা নেই। ত্বক ও চুল ভালো রাখতে খুব উপকার করে। বিশেষ করে ত্বকে ব্রণ, ব্রণের দাগ, মেসতা থেকে বয়সের ছাপ সব ক্ষেত্রেই এলোভেরা জেল ভালো কাজ করে। তবে বাজারে যে সকল পাওয়া যায় সেগুলোর দাম যেমন বেশি তেমন এতে থাকে অনেক ধরনের রাসায়নিক উপকরণ। তবে ঘরে তৈরি করে নিলে আপনি কম খরচে তৈরি করতে পারবেন, সেই সাথে জেলটি অনেক বেশি নিরাপদ হবে। তাই আসুন জেনে নেই কিভাবে বাসায় তৈরি করবেন এলোভেরা জেল।

প্রথমে ভালো ও পুস্ট দেখে এলোভেরা পাতা নিন, ঢাকা শহরের যেকোন যায়গায় এলোভেরা পাতা কিনতে পারবেন। পাতাটি ভালোভাবে পরিস্কার করে নিন। ভালোভাবে পরিস্কার করার পর ভালোভাবে এলোভেরার পাতা থেকে এলোভেরার পাল্প অর্থাৎ জেলি অংশটুকু বের করে নিন। পাতা কাটার সময় নজর রাখতে হবে যে শুধু মাত্র জেল অংশই নেবেন। পাতাটি থেকে এলোভেরা পাল্প বের করার পর একটি পরিস্কার পাত্রের উপর রেখে ছোট ছোট টুকরা করে জেল কেটে নিন। এর পর একটি ব্লেন্ডারে নিয়ে ভালভাবে ব্লেন্ড করে নিন। এলোভেরার জুস তৈরি হয়ে গেলে একটি পরিস্কার পাত্রে ভালোভাবে ছেকে সংগ্রহ করুন।

এবার চুলায় একটি পরিস্কার পাত্রে ১/২ কাপ পানি দিয়ে ফুটান। পানি ফুটে এলে এই পানিতে এলোভেরার জুস টুকু দিয়ে ভালোভাবে ফুটাতে থাকুন, আর বার বার নাড়তে থাকুন। ফুটানোর সময় যে ফ্যেনা তৈরি হবে, সাবধানতার সহিত সেই ফেনা একটি চামচের সাহায্যে তুলে ফেলে দিতে হবে। ২০ মিনিট পর এই মিশ্রনটি চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে নিন। এবার এই মিশ্রনটি একটি পরিস্কার কাচের পাত্রে সংরক্ষণ করতে হবে।

এলোভেরা জেল তৈরির প্রনালী

যাদের এলোভেরা জেল ত্বকে দিলে এলার্জি ওঠে তারা এই মিশ্রনটি ব্যবহার করতে পারেন। এই মিশ্রণটি ফ্রিজে রেখে এক সপ্তাহ ব্যবহার করতে পারবেন। এই মিশ্রণটি ৩-৪ ঘন্টা ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করুন। ৩-৪ঘন্টা পর এলোভেরা জেলটি ফ্রিজ থেকে নামিয়ে একটি পাত্রে ঢেলে নিন। মনে রাখবেন এই পুরো প্রনালীতে অবশ্যই সকল পাত্র পরিস্কার হতে হবে। এবং কাচের পাত্র হলে সব থেকে ভালো হয়।

এবার এই মিশ্রন থেকে ৫০০ এমএল নিয়ে তাতে ২ টেবিল চামচ কার্বোপোল মেশান, ভালোভাবে চামচ দিয়ে মেশাতে হবে। যেহেতু কার্বোপোল একটি পাওডার সেহেতু এটি মিশে যেতে সময় লাগবে, ধর্য্য ধরে মেশাতে হবে। এবার এই মিশ্রনের সাথে ১০০ এমএল পানি মেশান। ভালোভাবে মেশানো হয়ে গেলে ১২ঘন্টা একটি পরিস্কার স্থানে রেখে দিন , এবং মাঝে মাঝে নেড়ে চেড়ে দিন।

এবার জুস থেকে জেল তৈরির পালা, একটি পাত্রে ২০০ এমএল এলোভেরার জুস নিন। এবার এই মিশ্রনে ১ চা চামচ ট্রাই ইথানল এমিন (Tri Ethanol Amine) যোগ করতে হবে। এটা যোগ করার পর দেখবেন আস্তে আস্তে মিশ্রনটি জেলে পরিনত হতে থাকবে। চামচ দিয়ে ভালভাবে আস্তে আস্তে নাড়তে থাকুন। মিশ্রন একটু ঘন হয়ে এলে এতে কিছুটা পানি মেশাতে হবে। পানি অবশ্যই বিশুদ্ধ ও ঠান্ডা হতে হবে। এবং সামান্য ফুড কালার মিশিয়ে নিন। এতে জেলের কালার সুন্দর আসবে। চাইলে এতে সামান্য ফ্লেভার ও মেশাতে পারেন। অল্প অল্প করে পানি মিশিয়ে ভালোভাবে নাড়তে থাকুন। সময় নিয়ে নাড়তে হবে। জেল যখন গ্লেসি হয়ে যাবে তখন আর পানি মেশাবেন না। কারণ বেশি পানি মেশালে জেল লিকুইড হয়ে যাবে। আপনি যদি চুলের জন্য ব্যবহার করতে চান, তাহলে এতে ভিটামিন ই ক্যাপসুল মেশাতে পারেন। এবার একটি পরিস্কার পাত্রে জেলটি সংগ্রহ করে রাখুন।

আশা করি আপনারা সবাই বাসায় ট্রাই করবেন। এবং আমাদের সাথে শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ