ঢাকা সোমবার, ২৭ মে ২০২৪ আপডেট প্রায় ১ মাস আগে

জনপ্রিয়

পেঁয়াজ ছাড়া ১০টি রান্নার রেসিপি

ডেস্ক ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৮:২৫ ঘটিকা ১২৬

আচারি পনির

উপকরণ

  • পনির - ১/২ কেজি (চৌক করে মাঝারি আকারে কাটা)
  • তেল - ১০০ মিলিলিটার
  • মৌরি - ৪ চা চামচ
  • মেথি দানা - ১ চা চামচ
  • কালোজিরা - ১/২ চা চামচ
  • আদা বাটা - ৩ চা চামচ
  • গোটা জিরা - ২ চা চামচ
  • গোটা ধনিয়া - ২ চা চামচ
  • কাঁচামরিচ - ৪টি (কুচনো)
  • হলুদ - ১ চা চামচ
  • ফেটানো দই - ২০০ গ্রাম
  • আমচুর পাউডার - ৩ চা চামচ
  • চিনি - ২ চা চামচ
  • কাশ্মিরী মরিচ গুঁড়ো - ২ চা চামচ
  • লবন প্রয়োজন মতো

প্রণালীঃ  

ঠান্ডা তেলে মৌরি, মেথি, কালোজিরা, রাই সর্ষে, জিরা ফোড়ন দিন এবার গ্যাস অন করুন, মশলার হালকা গন্ধ বেরোলে, ১৫-২০ সেকেন্ড বাদে ফোড়ন ফাটতে শুরু করলে এতে সামান্য জল দিন, তারপর এতে আদা বাটা দিন। এতে হলুদ গুঁড়ো দিয়ে এক, দেড় মিনিট ভাল করে ভাজুন। এতে দই দিন, আমচুর পাউডার দিন, মরিচগুঁড়ো দিন, চিনি ও স্বাদমতো লবন দিন। তেলে ছেড়ে বেরিয়ে আসা পর্যন্ত রান্না করুন। এতে পনির দিন। এবং আধ কাপ জল দিন। ভাল করে ফুটে গেল হাল্কা আঁচে ১ মিনিট বসিয়ে নামিয়ে নিন। গরম গরম রুটি, পরোটা বা লুচির সাথে পরিবেশন করুন।

জিরা আলু

উপকরণ

  • বড় সিদ্ধ আলু ৪- টে কিউব করে কাটা,
  • গোটা জিরা ১ চা চামচ,
  • ভাজা জিরার গুঁড়ো ১ চা চামচ,
  • তেল ৪ টেবিল চামচ,
  • লংকার গুঁড়ো ১ চা চামচ,
  • ধনে গুঁড়ো ১ চা চামচ,
  • লবন স্বাদ মতো,
  • লেবুর রস ১ চা চামচ,
  • ধনে পাতা কুচি ২ টেবিল চামচ।

প্রণালী

ঠান্ডা প্যানে গোটা জিরা দিয়ে এবার গ্যাস অন করুন। জিরা হালকা করে ভেজে নিন। লবন দিয়ে কিছুক্ষণ নেড়ে লংকার গুঁড়ো , ধনে গুঁড়ো , জিরা গুঁড়ো আর লেবুর রস দিন । সিদ্ধ করা আলুর কিউবগুলো দিয়ে সাবধানে নেড়ে মশলার সাথে ভালোভাবে মিশিয়ে দিন। নামানোর আগে ধনে পাতা ছিটিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

পনির সবজি

উপকরণ

  • আলু, গাজর, বিনস
  • মটরশুটি-1/2 কাপ,
  • তেজপাতা ১-টা,
  • কালোজিরা ১,চামচ ,
  • কাঁচালংকা ২ টি ,
  • নারকেল,
  • দুধ,
  • পনির।

প্রণালী

সব সবজি বড় বড় করে কেটে নিতে হবে। অল্প তেলে সাঁতলিয়ে নিতে হবে। এরপর পনিরের টুকরা ছোট ছোট করে কেটে তেলে ভেজে গরম জলে ১০ মিনিট ভিজিয়ে নিতে হবে। এগুলো আলাদা বাটিতে উঠিয়ে রাখতে হবে। ঠান্ডা কড়াইয়ে তেল ও ঘি একসঙ্গে দিতে হবে, এরপর তেজপাতা, সামান্য কালজিরা, চেরা কাঁচালংকা দিয়ে ফোড়ন দিতে হবে। তারপর এক কাপ দুধের মধ্যে একটু নারকেল মিহি করে বেটে দিতে হবে। এরপর ভালোভাবে কষিয়ে নিতে হবে। কষানো শেষে পনিরের টুকরো সহ সব সবজি কড়াইয়ের ঢেলে দিতে হবে। এভাবে পনিরের তরকারি তৈরি হয়ে যাবে। যারা ভালোবাসেন নাবাবার সময় গরম মশলা, ঘি দিয়ে নাবিয়ে নিন।

পনির বাটার

উপকরণ

  • পনির- ৫০০ গ্রাম ( চৌকো করে কাটা)
  • চারমগজ - ১/৪ কাপ
  • কাজুবাটা - ১/৪ কাপ
  • টমেটো- ৩ টি (পিউরি)
  • কাঁচা মরিচ - ২টি (চেঁরা)
  • আদাবাটা - ১ টেবিল চামচ
  • হলুদ গুঁড়ো - ১ চা চামচ
  • লাল মরিচগুঁড়ো - ১ চা চামচ
  • ধনে গুঁড়ো - ২ চা চামচ
  • গরম মশলা গুঁড়ো - ১ চা চামচ
  • চিনি - ১/২ চা চামচ
  • লবন- স্বাদমতো
  • গোটা জিরা - ১ চা চামচ
  • দুধ - ১/২ কাপ
  • মাখন - ১ টেবিলচামচ
  • তেল - ১ টেবিলচামচ
  • আদার পাতলা ফালি (জুলিয়ন) - সাজানোর জন্য

প্রণালী

পনিরের টুকরোগুলি লবন হলুদ মাখিয়ে গরম তেলে ভাল করে ভেজে নিন। গরমজলে ১০ মিনিট রেখে দিন। একটি প্যানে মাখন ও জিরা দিয়ে দিন, ওভেন অন করুন। জিরা ফাটতে শুরু করলে তাতে শুকনো মরিচ ফোড়ন দিন। এতে আদা বাটা, কাঁচা মরিচ ও গুঁড়ো মশলাগুলি দিয়ে ভাল করে কষতে থাকুন। ২-৩ মিনিট মতো কষুন। এতে টমেটো পিউরি দিয়ে দিন। ৫ মিনিট ভাল করে রান্না করুন। এতে কাজু ও চারমগজ বাটা দিয়ে দিন। টমেটোর সঙ্গে কাজু ভাল করে মিশে গেলে এতে উষ্ণ জল ঢেলে দিন। আন্দাজমতো জল দেবেন। যতটা দরকার। আপনি যদি বেশি ঘন ঘন চান অল্প জল দেবেন। যদি একটু পাতলা চান তাহলে একটু কম দেবেন।

কারিটা ফুটতে দিন। এক ফুট এলে তাতে ভাজা পনিরের টুকরোগুলি দিয়ে দিন। ঢাকা দিয়ে ৫-৬ মিনিট রান্না করুন। হয়ে গেলে উপর থেকে উপর থেকে আর একটু মাখন ছড়িয়ে দিন। আদার জুলিয়ন ও ক্রিম ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

দই পটল

উপকরণ

  • টাটকা কচি পটল ৫০০ গ্রাম,
  • দই ২০০ গ্রাম,
  • আদাবাটা বড় ১/২ চামচ,
  • মরিচবাটা ১/২ চা চামচ,
  • হলুদ বাটা ১/২ চা চামচ,
  • তেজপাতা দুটি,
  • সামান্য হিং,
  • পরিমান মতো লবন,
  • সামান্য চিনি,
  • তেল, ঘি বড় ১ চামচ,
  • বাটা গরম মশলা (৩-৪ টি এলাচ, দারুচিনি ছোট টুকরো ৪-৫ টি),
  • ফোড়নের জন্য জিরা।

প্রণালী

পটলের পাতলা খোসা ছাড়িয়ে দু দিকের মুখ একটু করে কেটে ধুয়ে রেখে দিন। কড়াইতে তেল দিন। তেল গরম হলে পটল গুলো লবন হলুদ মাখিয়ে লালচে করে ভেজে রাখুন। পটল ভাজার তেল কালো হবে সেই জন্য এই ভাজা তেল অন্ন একটি পাত্রে ঢেলে রেখে দিন। আবার ভাল তেল দিন। তেলে একটু ঘি দিন, হিং, গোটাজিরা, তেজপাতা ও ফোড়ন দিন, এবার ওভেন অন করুন। হালকা গন্ধ বেরোলে, আদাবাটা, মরিচবাটা, অল্প হলুদ বাটা চিনি ও পরিমান মতো লবন দিয়ে বেশ করে কষে নিন। মশলা কষা হয়ে গেলে দই অল্প চিনি দিয়ে ভালো করে ফেটিয়ে নিন। একটু নাড়াচাড়া করে ভাজা পটল গুলো দিয়ে দিন। প্রয়োজন হলে সামান্য জলের ছিটে দিন। নেড়েচেড়ে নামিয়ে ঢেকে দিন।

সুক্তো

উপকরণ:

  • উচ্ছে ১টি(বড়),
  • বেগুন ২টি(মাঝারি মাপের),
  • কাঁচকলা ১টি(বড়),
  • সজনে ডাঁটা ২টি,
  • আলু ২টি(বড়),
  • নুন,
  • সরষের তেল,
  • আদাবাটা(১চা চামচ),
  • সরষেবাটা(১চা চামচ),
  • রাঁধুনি সামান্য,
  • তেজপাতা ২-৩টা,
  • দুধ ও ময়দা সামান্য,
  • ১ চামচ পাঁচফোড়ন ভাজা গুড়োঁ,
  • ১চামচ ঘি,
  • বড়ি ভাজা ।

প্রণালী: প্রথমে কড়াইতে সরষের তেল গরম করে উচ্ছে ভেজে তুলে নিন। এই তেলে রাঁধুনি ও তেজপাতা ফোড়ন দেবেন।এতেই বাকি- সব্জি বেশ করে সাঁতলে নিন। তরকারি একটু ভাজা হলে দুধ, সরষে, ময়দা মিশিয়ে কড়াইতে ঢেলে দেবেন।সামান্য জল দিন।তারপর সেদ্ধ হয়ে গেলে নামিয়ে ১চামচ ঘি আর ১ চামচ পাঁচফোড়ন ভেজে গুড়োঁ করে,বড়ি ছড়িয়ে নামিয়ে দিতে হবে।

ঝিঙে পোস্ত

উপকরণ:

  • আলু-৫ থেকে ৬টা মাঝারি সাইজের(১ ইঞ্চি কিউবে কাটা),
  • ঝিঙে-৪টে,
  • পোস্ত-৪ টেবিল চামচ,
  • তেল-২ টেবিল চামচ,
  • মেথি-১/২ চা চামচ,
  • কাঁচা লঙ্কা-২টো(চেরা),
  • নুন-স্বাদ মতো

প্রণালী:

পোস্ত ১ কাপ জলে ভিজিয়ে মিহি করে বেটে নিন। আলু অল্প নুন দিয়ে ৫ মিনিট ভেজে তুলে রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে মেথি ফোড়ন দিন। ঝিঙে দিয়ে নাড়তে থাকুন। ঝিঙে থেকে জল বেরোতে শুরু করলে ভেজে রাখা আলু দিন। পোস্টবাটা ও ১ কাপ জল দিয়ে নুন দিন। কড়াই চাপা দিয়ে আলু সেদ্ধ হয়ে জল টেনে আসা পর্যন্ত রান্না করুন। হয়ে গেলে ওপরে কাঁচালঙ্কা দিয়ে উল্টেপাল্টে নেড়ে নামিয়ে নিন।

ছানা পটোলের রসা

নিরামিষের দিনগুলোয় অনেক বাড়িতেই পনির রাঁধার প্রচলন রয়েছে। তবে, একঘেয়েমি পনির না খেয়ে বরং স্বাদবদল করতে পারেন ছানার রসায়। ঝাল-মিষ্টি এই রেসিপি আপনার খিদে যে আরেকটু বাড়িয়ে তুলবে সে কথা বলাই যায়। ছানা পটলের রসা একটি সুস্বাদু রান্না যা ছবি দেখেই বুঝে নেয়া যায়।

উপকরণ

  • পটল (৬-৮ টা, লম্বালম্বি করে কাটা),
  • সর্ষের তেল, ছানা (১ কাপ),
  • পাতি লেবুর রস (এক টুকরো),
  • দুধ (আধ কাপ),
  • নুন,
  • চিনি,
  • হলুদ গুঁড়ো,
  • লঙ্কা গুঁড়ো,
  • আদা বাটা (১ চামচ),
  • পেঁয়াজ বাটা (১ চামচ),
  • গোটা গরম মশলা,
  • মেথি।

প্রণালী - প্রথমে পটল চার ফালা করে কেটে সর্ষের তেলে সাঁতলে নিতে হবে। এবার প্যানে সর্ষের তেলে মেথি, গরম মশলা ফোড়ন দিয়ে পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা, হলুদ, লঙ্কা গুঁড়ো দিয়ে সামান্য জল দিয়ে কষতে হবে। এবার দুধ দিয়ে ফুটিয়ে তরকারিতে দিয়ে ঢেকে রান্না করতে হবে। এরপর ছানা দিয়ে নাড়তে হবে। কম আঁচে রান্না করতে হবে। পটল সেদ্ধ হলে লেবুর রস দিয়ে নেড়ে আঁচ থেকে নামিয়ে রুটি ,গরম ভাত বা পোলাও-এর সঙ্গে পরিবেশন করুন।

আলু ফুলকপির ডালনা

উপকরণ:

  • ফুলকপি ছোটো টুকরো করে কেটে রাখা ৩০০ গ্রাম,
  • আলু ছোটো টুকরো করে কেটে রাখা ২০০ গ্রাম,
  • টোম্যাটো কোচানো ৪ চামচ,
  • ধনেপাতা বাটা ৪ চামচ,
  • মটরশুঁটি ৬ চামচ,
  • কাঁচালঙ্কা কুচি ২ চামচ,
  • হলুদ গুঁড়ো ২ চামচ,
  • চিনি ১ চামচ,
  • নুন স্বাদমতো,
  • সরষের তেল পরিমাণমতো

পদ্ধতি - কড়াইয়ে সরষের তেল গরম করুন। তেল গরম হলে কড়াইয়ে ফুলকপি ও আলুর টুকরোগুলো দিয়ে দিন। এরপর একে একে হলুদ, নুন, চিনি, কোচানো টোম্যাটো, কড়াইশুঁটি, কাঁচালঙ্কা কুচি দিয়ে নাড়তে থাকুন। সবজিগুলো সেদ্ধ করার জন্য কড়াই ঢেকে দিন। মিনিট দশেক পর ঢাকনা খুলে দেখবেন সবজিগুলো সেদ্ধ হয়ে গেছে। সবজিগুলো খানিকক্ষণ নাড়াচাড়ার পর কড়াইয়ে ধনেপাতা বাটা দিয়ে দিন। এরপর সবজির সঙ্গে ধনেপাতা বাটা ভালোভাবে মিশিয়ে গ্যাস বন্ধ করে দিন। তৈরি, আলু ফুলকপির সুগন্ধী ডালনা। গরম গরম ভাত বা রুটির সঙ্গে পরিবেশন করুন।

কুমড়োর ছক্কা

উপকরণ:

  • পাকা কুমড়ো ৫০০ গ্রাম(ডুমো ডুমো করে কাটা),
  • আলু ২০০ গ্রাম(ডুমো ডুমো করে কাটা),
  • কাঁচা ছোলা ৩ চামচ (ভেজানো),
  • মটর ডাল ১/২ কাপ (ভিজিয়ে বাটা),
  • তেজপাতা ২ টি,
  • পাঁচফোড়ন ১ চামচ,
  • শুকনো লঙ্কা,
  • হলুদ ১ চামচ,
  • লঙ্কা গুঁড়ো ১ চামচ,
  • জিরে গুঁড়ো ১ চামচ,
  • নুন ও সরষের তেল আন্দাজমতো,
  • গরমমশলা ১/২ চামচ,
  • আদা বাটা ১ চামচ,
  • চেরাকাঁচালঙ্কা ৫ টি,
  • ধনেপাতাকুচি ১/২ কাপ,
  • চিনি ৩ চামচ

প্রণালী: কুমড়ো, কাঁচা ছোলা ও আলু প্রথমে ভেজে নিন। মটর ডালটাও একটু ভেজে নিন। এবার পাত্রে তেল গরম করে তেজপাতা, শুকনো লঙ্কা, ও পাঁচফোড়ন দিন। সব মশলা দিয়ে একটু ভেজে নিন। এবার ভেজে রাখা কুমড়ো ও আলু দিন। নুন ও চিনি দিয়ে নেড়ে নিন। ঢাকা দিয়ে দিন। এতেই সেদ্ধ হয়ে যাবে, যদি না হয় তবে একটু জল দেবেন। মাখা মাখা হলে নামিয়ে নিন। নামাবার আগে গরমমশলা, চেরাকাঁচালঙ্কা, ধনেপাতাকুচি ছড়িয়ে একটু ভাজা ভাজা করে নামিয়ে নিন।

আপনার জন্য নির্বাচিত »

রান্না-রেসিপি থেকে আরও খবর »